শিরোনাম
আহম্মদীয়া হাফেজিয়া ফোরকানিয়া সুন্নিয়া মাদ্রাসা ও এতিমখানার উদ্যোগে ঈদে মিলাদুন্নবী মাহফিল অনুষ্ঠিত। পতেঙ্গায় সনাতন ধর্মাবলম্বীদের মৌন প্রতিবাদ। কুমারী দিঘীরপাড় এলাকাবাসির উদ্যোগে ঈদে মিলাদুন্নবী মাহফিল অনুষ্ঠিত ফটিকছড়ি সৈয়দ বাড়ী দরবার শরীফের জসনে জুলুস পীর সাবের শাহ এর সদারতে অনুষ্ঠিত হলো চট্টগ্রামের বৃহত্তর জসনে জুলুশ লোহাগাড়ার চুনতিতে দিন-দুপুরে মুদি দোকানে চুরি মাদ্রাসার ৬ শিক্ষার্থীর চুল কাটলেন শিক্ষক নকশা সংশোধন সিমেন্ট ক্রসিং মোড়ে যুক্ত হচ্ছে র‌্যাম্প নিজের তৈরি বিমানের যাত্রী হবার স্বপ্ন আশিরের পতেঙ্গা সি-বিচ দোকান মালিকদের মেয়রের উপহার প্রদান
বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ০৯:০৬ পূর্বাহ্ন

পতেঙ্গা চরপাড়া লাইটার ঘাটে অবৈধ ইজারা বাতিলের দাবিতে মানববন্ধন।

হাসান রিফাত / ১০২ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : শনিবার, ২ অক্টোবর, ২০২১

নগরীর পতেঙ্গা থানাধীন ৪১নং ওয়ার্ড কাঠগড় চরপাড়া সাগর পাড় এলাকায় এক মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়। অদ্য (২ অক্টোবর) শনিবার বিকেল ৫ ঘটিকার সময় মানববন্ধনের আয়োজন করে বাংলাদেশ লাইটার শ্রমিক ইউনিয়ন। উক্ত মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ নৌযান শ্রমিক ফেডারেশন কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক খোরশেদ আলম, লাইটার শ্রমিক ইউনিয়নের সহ সভাপতি তালেব উল্লাহ, বাংলাদেশ নৌযান শ্রমিক ফেডারেশন চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিটির সহ-সভাপতি ক্যাপ্টেন মোহাম্মদ শফি। মানববন্ধনে আরও উপস্থিত ছিলেন কার্যনির্বাহী সদস্য আলম কবির, গিয়াস উদ্দিন মনির সহ বাংলাদেশ লাইটার শ্রমিক ইউনিয়নের সকল নেতৃবৃন্দ। মানববন্ধনে খোরশেদ আলম বলেন, বিগত ২০১৯ সালে আমাদের এই ঘাটটি ছিল শঙ্খ নদীতে। এরপরে বন্দরের চেয়ারম্যান সেই শঙ্খ নদীর ঘাটটি পরে আমাদেরকে দেয় মুসলিমাবাদ চরপাড়া এলাকায়। বর্তমানে চরপাড়ার এই ঘাটটি নেওয়ার জন্য বহিরাগত কিছু লোক পাইতারা শুরু করেছে। বর্তমানে এই ঘাটের ভাড়া বেশি নেওয়া হচ্ছে। আমরা যারা শ্রমিক আছি আমরা সবাই চাই এই ঘাটটি সবার জন্য উন্মুক্ত করা হোক। বর্তমানে যে ঘাট রয়েছে এর পাশাপাশি আরও দুটি বা তিনটি ঘাট নতুন করে করার জন্য বন্দরের চেয়ারম্যানের কাছে বিশেষভাবে অনুরোধ করছি। বর্তমানে আমাদের লাইটার জাহাজগুলো ঠিকমত পার্কিং করতে পারছিনা। পার্কিংয়ের অভাবে আমাদের জাহাজগুলো এলোমেলোভাবে পড়ে থাকে। তিনি বলেন, বিভিন্ন সময় ঘাটে উঠানামা করতে দুর্ঘটনার শিকার হতে হয় সাধারণ মানুষ সহ ঘাটের শ্রমিকদেরকে। আমাদের একটাই দাবি, নতুন করে আরও তিনটি ঘাট করে দেওয়া হোক।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ